বুধবার ২২ মে ২০২৪

পুঁজিবাজারকে বিনিয়োগবান্ধব করতে দ্বৈতকর নীতি পরিহার করার আহ্বান
তাজাখবর২৪.কম,ঢাকা:
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৬ মে, ২০২৪, ১২:০০ এএম | অনলাইন সংস্করণ
দ্বৈত করের কারণে বিনিয়োগকারীরা ধীরে ধীরে পুঁজিবাজার বিমুখ হয়ে পড়ছেন বলে দাবি বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের।

দ্বৈত করের কারণে বিনিয়োগকারীরা ধীরে ধীরে পুঁজিবাজার বিমুখ হয়ে পড়ছেন বলে দাবি বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের।

তাজাখবর২৪.কম,ঢাকা:

বাজেটে আর্থিক খাতের নানা সংস্কারের কথা বলা হলেও বরাবরই উপেক্ষিত পুঁজিবাজার। আবার কোনো উদ্যোগ নিলেও তা দেখে না আলোর মুখ। অথচ বাজারটিকে শক্তিশালী করতে নানা পদক্ষেপের প্রয়োজনীয়তা দেখছেন সংশ্লিষ্টরা। এ অবস্থায় আসছে বাজেটে তালিকাভুক্ত কোম্পানির ভ্যাট ৫ শতাংশ কমিয়ে ১০ শতাংশ করার দাবি তুলেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। আর বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্সরা বলছেন, দ্বৈতকর নীতি পরিহার না করলে বিনিয়োগবান্ধব হবে না পুঁজিবাজার। বিশ্লেষকদের পরামর্শ, এবারও যেন বড় বড় প্রকল্পের আড়ালে চলে না যায় অর্থনীতির এই শক্তিশালী ভিত।

বরাবরই বিশ্বব্যাপী পুঁজিবাজার, উদীয়মান অর্থনীতিতে বিনিয়োগের সহজ পথ খুলে দিলেও; যেন তা ভিন্নপথে চলে বাংলাদেশে। ব্যক্তি পর্যায়ের অর্থ লগ্নিতে ধুঁকে চলা বাজারটিতে সোনার হরিণ প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ। এখানে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরা যতোটা লাভবান হন তারচেয়ে বেশি পড়েন লোকসানে, বছরজুড়েই থাকেন ঝুঁকির মুখে। তারপরও পুঁজিবাজার নিয়ে কী থাকছে আসছে বাজেটে, তা দেখার অপেক্ষায় তারা।বিনিয়োগকারীরা বলেন, পুঁজিবাজারকে স্থিতিশীল করার জন্য অনেক উদ্যোগই নেয়া হয়েছে। কিন্তু বাস্তবায়নের অভাবে কোনো কাজের কাজ হয়নি।
 
বাজেটে কেমন গুরুত্ব পায় পুঁজিবাজার? পর্যালোচনায় দেখা যাচ্ছে, উদ্যোগগুলো ২০১৮-১৯ অর্থবছর এ খাতকে দ্বিতীয় অগ্রাধিকার খাত হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। যদিও বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে নেয়া উদ্যোগের বেশিরভাগই এখনও হয়নি বাস্তবায়ন।২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে দ্বৈতকর পরিহার করার পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানগুলোর মুনাফার কমপক্ষে ৫০ শতাংশ নগদ ডিভিডেন্ড বাধ্যতামূলক করার প্রস্তাব করা হয়। যদিও তা এখনও আলোর মুখ দেখেনি। এই দ্বৈতকরই বিনিয়োগকারীদের পুঁজিবাজার বিমুখ করছে বলে দাবি বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) সভাপতি মাজেদা খাতুনের।
 
তিনি বলেন, দ্বৈতকরের কারণেই বিনিয়োগকারীরা ধীরে ধীরে পুঁজিবাজার বিমুখ হয়ে পড়ছেন। দ্বৈতকর নীতি পরিহার না করলে বিনিয়োগবান্ধব হবে না পুঁজিবাজার।জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর), অর্থ মন্ত্রণালয় বারবার ফিরিয়ে দিলেও, আসছে বাজেটেও ভালো প্রতিষ্ঠানের তালিকাভুক্তি বাড়াতে কর সুবিধা বাড়ানোর তাগিদ বিএসইসি, ডিএসই, সিএসসি-সহ সংশ্লিষ্টদের।
 
ডিএসইর পরিচালক শাকিল রিজভী বলেন, একটি প্রতিষ্ঠান ট্যাক্স পরিশোধ করার পরই লভ্যাংশ দেয়। কিন্তু এরপরও লভ্যাংশ গ্রহীতাকে ট্যাক্স দিতে হচ্ছে।এদিকে, মেগা প্রকল্পের ভিড়ে যেন হারিয়ে না যায় অর্থ সংস্থানের সহজ খাত পুঁজিবাজার- সেদিকে নজর রাখার পরামর্শ খাত বিশ্লেষকদের। পুঁজিবাজার বিশ্লেষক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আল আমিন বলেন, দেশে বর্তমানে বেশ কয়েকটি মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তাই সরকার পুরো অর্থনৈতিক খাতকে গুরুত্ব দিতে হয়ত পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের চাহিদা মতো গুরুত্ব দিতে পারছে না। সরকারকে এদিকেও নজর দিতে হবে।
 
আসন্ন বাজেটে ঘুরে দাঁড়ানোর অপেক্ষায় যখন পুঁজিবাজার, তখন হিসাব বলছে গেল ৩ মার্চ থেকে ১৫ মে পর্যন্ত এই দেড় মাসে হতাশ হয়ে পুঁজিবাজার থেকে বিনিয়োগ সরিয়ে নিয়েছে ৬১ হাজার ৪২৩টি বিও অ্যাকাউন্ট।আর রুগ্ন পুঁজিবাজারের অসুখ সারাতে কোনো উদ্যোগই যখন কাজে আসছে না, তখন আসন্ন বাজেটে এ খাতে কী সুখবর আসে সেদিকেই লক্ষ্য সাধারণ বিনিয়োগকারীদের।

তাজাখবর২৪.কম:ঢাকা বৃহস্পতিবার , ১৬ মে  ২০২৪, ০২  জ্যৈষ্ট ১৪৩১, ০৭ জিলক্বদ ১৪৪৫

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদক: কায়সার হাসান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: এ্যাডভোকেট শাহিদা রহমান রিংকু, সহকারি সম্পাদক: জহির হাসান,নগর সম্পাদক: তাজুল ইসলাম।
বার্তা ও বাণিজ্যক কার্যালয়: মডার্ণ ম্যানশন (১৫ তলা) ৫৩ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা-১০০০।
ফোন: ০৮৮-০২-৫৭১৬০৭২০, মোবাইল: ০১৭৫৫৩৭৬১৭৮,০১৮১৮১২০৯০৮, ই-মেইল: [email protected], [email protected]
সম্পাদক: কায়সার হাসান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: এ্যাডভোকেট শাহিদা রহমান রিংকু, সহকারি সম্পাদক: জহির হাসান,নগর সম্পাদক: তাজুল ইসলাম।
বার্তা ও বাণিজ্যক কার্যালয়: মডার্ণ ম্যানশন (১৫ তলা) ৫৩ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা-১০০০।
🔝