শনিবার ২ মার্চ ২০২৪

শেরপুরে পাকুড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অবৈধ নিয়োগ বানিজ্য কোটি টাকার ঘাপলা
সুমন কুমার দে,তাজাখবর২৪.কম,শেরপুর:
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১২:০০ এএম | অনলাইন সংস্করণ
শেরপুরে পাকুড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অবৈধ নিয়োগ বানিজ্য কোটি টাকার ঘাপলা-ফটো- সংগৃহিত

শেরপুরে পাকুড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অবৈধ নিয়োগ বানিজ্য কোটি টাকার ঘাপলা-ফটো- সংগৃহিত

সুমন কুমার দে,তাজাখবর২৪.কম,শেরপুর: শেরপুর জেলার সদর উপজেলার ৬ নং পাকুড়িয়া ইউনিয়নে অবস্থিত পাকুড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক তথাকথিত  ম্যানেজিং কমিটির বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম, অবৈধ নিয়োগ,অর্থ আত্মসাৎসহ নানা অভিযোগ এনে স্কুলের জমিদাতা মো. হাবিবুর রহমান হবি ও মো. নবী হোসেন মহা পরিচালক মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর ঢাকা- বরাবরসহ জেলা প্রসাশক, জেলা শিক্ষা অফিসার, উপজেলা শিক্ষা অফিসার, নির্বাহী অফিসার শেরপুর সদরসহ শেরপুর প্রেস ক্লাব বরাবর এক লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
 
সাক্ষরিত ওই লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, গত ৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ইং তারিখে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে অফিস সহকারী মো. জহুরুল হক  মৃত্যু বরণ করলে ফলে উক্ত প্রতিষ্ঠানে পদটি শূন্য হয়ে পড়ে। এমতাবস্থায় দীর্ঘ দিনের অবৈধ ভূয়া কমিটির সভাপতি, মো. আবুল কালাম আজাদ ও স্কুলের প্রধান শিক্ষক, মো. নওশাদ আলী উভয় দ্বয় সরকারি নিয়ম নীতি উপেক্ষা করে অতি গোপনে শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে  শূন্য পদটি প্রধান শিক্ষক নওশাদ আলীর একমাত্র  সন্তান খায়রুল ইসলাম (নাহিদ) কে উক্ত শূন্য পদে নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এছাড়াও অত্র বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ এর পুত্র বধু হাবিবা ইয়াছমিন তামান্না যাহারা ইনডেক্স নং- N56792346 তিনি ক্লিনার পদে চাকরিতে কাগজ কলমে যোগদান করলেও সরকারি বেতন ভাতা উত্তোলন ছাড়া ওনাকে স্কুলে পাওয়া যায়নি।
অপরদিকে ২০১৯ সালে হাই সেকশন MPO ভুক্ত হওয়ায় উক্ত MPO তে কম্পিউটার শিক্ষক নজরুল ইসলাম যাহার ইনডেক্স নং-N1073005 চাকরি বয়স ১০ বছর না হতেই প্রধান শিক্ষক কে ম্যানেজ করে মোট অংকের অর্থ বিনিময়ে অবৈধ ভাবে নবম গ্রেডে সরকারি বেতন ভাতা উত্তোলন করিয়া আসিতেছে। এছাড়া নতুন হাই সেকশন MPO তে আর দুইজন শিক্ষক ইতোমধ্যে প্রধান শিক্ষক কে অর্থের বিনিময়ে ম্যানেজ করে নবম গ্রেডে
সরকারি বেতন ভাতা উত্তোলন করিয়া আসিতেছে এরা হলেন- অত্র বিদ্যালের সহকারি শিক্ষক মো. আব্দুল মান্নান যাহার ইনডেক্স নং-N56792346 ও রেহেনা মুরছালিন
যাহার ইনডেক্স নং-N56792345।
প্রধান শিক্ষক ও ভূয়া কমিটির সভাপতির বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের নানা ভূয়া ভাউচার ছাত্র ছাত্রী দের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় এবং এ প্রতিষ্ঠানে জনবল নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রায় কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ তুলছেন জমিদাতা মো.  হাবিবুর রহমান হবি ও নবী হোসেনসহ  সংশ্রিষ্ট এলাকা বাসী জানায়।

প্রায় কোটি  টাকার নিয়োগ ব্যানিজ্যের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সাম্প্রতিককালে বেশ কয়েকটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়েছিলো বলে এলাকা বাসীর বিভিন্ন সূত্র থেকে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এবিষয়ে প্রধান শিক্ষক মো. নওশাদ আলীর সাথে মোঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত উক্ত শূন্য পদে নিয়োগ দেওয়া হয়নি। কিন্তু ইতোমধ্যে স্কুলের একাধিক সূত্র থেকে নিশ্চিত হওয়া গেছে যে অতি গোপনে প্রধান শিক্ষক এর ছেলে খায়রুল ইসলাম নাহিদকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে শেরপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক জেলা শিক্ষা অফিসার বলেন, অভিযোগ পেয়েছি
আমার উর্দ্দতন কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ দিয়েছে
উর্দ্দতন কর্মকর্তা যে নির্দেশনা দিবেন সে মোতাবেক তদন্ত করে ব্যবস্হা গ্রহন করা হবে।
তাজাখবর২৪.কম: ঢাকা মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৩০ মাঘ ১৪৩০, ০২ শাবান ১৪৪৫



« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদক: কায়সার হাসান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আর কে ফারুকী নজরুল, সহকারি সম্পাদক: জহির হাসান,নগর সম্পাদক: তাজুল ইসলাম।
ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: মডার্ণ ম্যানশন (১৫ তলা) ৫৩ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা-১০০০।
ফোন: ০৮৮-০২-৫৭১৬০৭২০, মোবাইল: ০১৮১৮১২০৯০৮, ই-মেইল: [email protected], [email protected]
সম্পাদক: কায়সার হাসান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আর কে ফারুকী নজরুল, সহকারি সম্পাদক: জহির হাসান,নগর সম্পাদক: তাজুল ইসলাম।
ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: মডার্ণ ম্যানশন (১৫ তলা) ৫৩ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা-১০০০।
🔝