শনিবার ২ মার্চ ২০২৪

শারীরিক ও মানসিকভাবে বিকশিত হলেই শিক্ষার্থীদের বহুমাত্রিক বোধের উন্মেষ ঘটবে: আজিজুল হক হাজারী
তাজাখবর২৪.কম,সিলেট:
প্রকাশ: রোববার, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১২:০০ এএম | অনলাইন সংস্করণ
শারীরিক ও মানসিকভাবে বিকশিত হলেই শিক্ষার্থীদের বহুমাত্রিক বোধের উন্মেষ ঘটবে: আজিজুল হক হাজারী

শারীরিক ও মানসিকভাবে বিকশিত হলেই শিক্ষার্থীদের বহুমাত্রিক বোধের উন্মেষ ঘটবে: আজিজুল হক হাজারী

তাজাখবর২৪.কম,সিলেট: জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ এর ‘২২তম আন্তঃহাউস বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা-২০২৪’ এর
সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান ৩১ জানুয়ারি বুধবার বিকেল ৩টায় সিলেট ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড
কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১৭ পদাতিক
ডিভিশনের জিওসি, এরিয়া কমান্ডার, সিলেট এরিয়া এবং জেসিপিএসসি’র প্রধান পৃষ্ঠপোষক মেজর জেনারেল চৌধুরী
মোহাম্মদ আজিজুল হক হাজারী, ওএসপি (বার), এসজিপি, এনডিসি, পিএসসি, এমফিল। জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক
স্কুল এন্ড কলেজের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি কর্ণেল মোঃ মেহফুজার রহমান, পিবিজিএম, পিএসসি এবং জেসিপিএসসি’র
অধ্যক্ষ লে. কর্ণেল তাহিয়াত জালাল চৌধুরী, পিএসসি প্রধান অতিথিকে অভ্যর্থনা জানান এবং বিএনসিসি’র একটি চৌকস
দল মাননীয় প্রধান অতিথিকে ‘গার্ড অব অনার’ প্রদান করে।
সমাপনী অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল মামুন।
জেসিপিএসসি’র অধ্যক্ষ তাঁর বক্তব্যে আমন্ত্রিত অতিথি ও সম্মানিত অভিভাবকবৃন্দকে শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানান এবং
প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন একাডেমিক ফলাফল ও সহশিক্ষা কার্যক্রমের সাফল্য সম্পর্কে অবহিত করেন। তিনি
জেসিপিএসসি’র সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে ও সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতে সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।
প্যারেড কমান্ডার ও কলেজ প্রিফেক্ট দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী লাবিব ইসলাম জয় এর নেতৃত্বে ১০টি ইউনিটের
সদস্যদের সম্মিলিত মার্চপাস্ট অনুষ্ঠিত হয়। সম্মিলিত মার্চপাস্টে বিএনসিসি কন্টিনজেন্ট, বিএনসিসি লেডি-
কন্টিনজেন্ট, স্কাউট, গালর্স-ইন স্কাউট, সম্মিলিত বালিকা দল, পদ্মা হাউস, মেঘনা হাউস, যমুনা হাউস ও সুরমা হাউসের
সদস্যবৃন্দ নিজ নিজ পতাকা ও প্লে কার্ড এবং কলেজ ব্যান্ড দল বাদ্যযন্ত্র নিয়ে মার্চ পাস্টে অংশগ্রহণ করে।
প্রতিষ্ঠানের ৯০ জন শিক্ষার্থী আত্মরক্ষামূলক শরীরচর্চা কৌশল কোরিয়ান মার্শাল আর্ট ‘তায়কোয়ানডো’ প্রদর্শন
করে। ২৭০ জন শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে ‘আবহমান বাংলা ও মহান মুক্তিযুদ্ধ’ শিরোনামে মনোমুগ্ধকর ডিসপ্লে অনুষ্ঠিত
হয়।
প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, সুস্থ ও সুন্দর মননশীলতা ব্যতীত কোন শিক্ষার্থী লাবণ্যময় চিত্তের ও উন্মুক্ত
দৃষ্টির অধিকারী হতে পারে না। খেলাধুলার চর্চা ও অনুশীলন শিক্ষার্থীদের শারীরিক ও মানসিক উৎকর্ষ সাধনে সহায়তা
করে থাকে। প্রকৃতপক্ষে মানসিকভাবে বিকশিত হলেই শিক্ষার্থীদের মধ্যে বহুমাত্রিক বোধের উন্মেষ ঘটবে, জ্ঞানের
জন্য তাদের পিপাসা হবে জ্বলন্ত। এই নিরন্তর পিপাসায় তারা মশালের মতো জ্বলতে থাকবে। যার আলোয় তারা নিজে
আলোকিত হবে এবং আলোকিত করতে পারবে দেশ ও জাতিকে।
তিনি বলেন, আজকের শিশুরাই আমাদের ভবিষ্যৎ। শিক্ষার্থীদের শেখার আনন্দ ও সৃজনশীলতার সুযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে
বর্তমান সরকার শিক্ষাব্যবস্থায় এনেছে যুগোপযোগী ও শিক্ষার্থীবান্ধব শিক্ষাক্রম। আনন্দের সাথে শিক্ষাগ্রহণ ও
গতানুগতিক পরীক্ষা পদ্ধতির পরিবর্তন করা হয়েছে নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রমে। বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক পরিচালিত
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহ সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ বাস্তবায়নের লক্ষে কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নে কাজ করে
যাচ্ছে। জালালাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ শিক্ষাগ্রহণের সুন্দর পরিবেশ তৈরি করতে সূচনালগ্ন থেকেই
নিরবচ্ছিন্ন প্রয়াস অব্যাহত রেখেছে এবং উপজেলা, জেলা, বিভাগ, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অত্র প্রতিষ্ঠানের
শিক্ষার্থীদের সাহিত্য-সংস্কৃতি, খেলাধুলাসহ বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় সাফল্য অর্জনের তালিকা দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর
হচ্ছে।
শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, শিক্ষাদানের উন্নত পরিবেশ, সুসজ্জিত বিজ্ঞানাগার, সুবিন্যস্ত গ্রন্থাগার, আধুনিক
শ্রেণিকক্ষ, দৃষ্টিনন্দন ক্যাম্পাস ও প্রয়োজনীয় শিক্ষা উপকরণ সমৃদ্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জেসিপিএসসি। জেসিপিএসসি’র
এই নিকুঞ্জময় পরিবেশে অধ্যয়ন করে তোমরা নৈতিকতাবোধসম্পন্ন মেধাবী মানুষ হবে। ‘আমার সোনার বাংলা আমি তোমায়
ভালোবাসি’ এই কথাটি অন্তরে ধারণ ও লালন করে জাতীয় অস্তিত্বের সর্বক্ষেত্রে শুভ্র চেতনার আলো জ্বালাতে চেষ্টা
করবে।
সমাপনী দিবসের অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন খেলার ইভেন্টের সাথে সাথে ‘যেমন খুশী তেমন সাজো’ প্রতিযোগিতায় অংশ
নেয়। সমাপনী দিবসের অনুষ্ঠানে আগত পুরুষ অভিভাবকরা ‘বেলুন রক্ষা’ ও মহিলা অভিভাবকরা ‘পিলো পাসিং’ প্রতিযোগিতায়
অংশগ্রহণ করে। দুই দিনব্যাপী ২২তম আন্তঃহাউস বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ৫২টি ইভেন্টে প্রায় চার শতাধিক
প্রতিযোগী শিক্ষার্থী চূড়ান্ত পর্বে অংশগ্রহণ করে এবং প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিভিন্ন পর্যায়ে মোট
১৬৩টি পুরস্কার প্রদান করা হয়।
‘২২তম আন্তঃহাউস বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা-২০২৪’ এ চ্যাম্পিয়ন মেঘনা হাউসকে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি এবং যমুনা
হাউসকে রানার্স আপ হাউস হিসেবে পুরস্কার প্রদান করেন। বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় নৈপুণ্যের জন্য চারটি গ্রুপে
৮জন শিক্ষার্থী শ্রেষ্ঠ ক্রীড়াবিদ নির্বাচিত হয়। ২০২৩ শিক্ষাবর্ষের বিভিন্ন সহশিক্ষা কার্যক্রম ও প্রতিযোগিতায়
বিজয়ী পদ্মা হাউসকে ‘শ্রেষ্ঠ হাউস’ ঘোষণা করা হয়। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেসিপিএসসি’র ইংরেজি বিভাগের জ্যেষ্ঠ
প্রভাষক বিপ্লব কুমার সরকার এবং বাংলা বিভাগের জ্যেষ্ঠ প্রভাষক ফরিদা ইয়াসমীন। বিভিন্ন খেলার ইভেন্ট পরিচালনায়

দায়িত্ব পালন করেন সিনিয়র ক্রীড়া শিক্ষক মো. হারুন অর রশিদ ও সিনিয়র শিক্ষক হুমাযুন কবির। ‘২২তম আন্তঃহাউস
বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা-২০২৪’ এর আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এম.
ফজলে এলাহী।

তাজাখবর২৪.কম: ঢাকা রোববার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪,২১ মাঘ ১৪৩০,২২ রজব ১৪৪৫




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদক: কায়সার হাসান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আর কে ফারুকী নজরুল, সহকারি সম্পাদক: জহির হাসান,নগর সম্পাদক: তাজুল ইসলাম।
ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: মডার্ণ ম্যানশন (১৫ তলা) ৫৩ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা-১০০০।
ফোন: ০৮৮-০২-৫৭১৬০৭২০, মোবাইল: ০১৮১৮১২০৯০৮, ই-মেইল: [email protected], [email protected]
সম্পাদক: কায়সার হাসান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আর কে ফারুকী নজরুল, সহকারি সম্পাদক: জহির হাসান,নগর সম্পাদক: তাজুল ইসলাম।
ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: মডার্ণ ম্যানশন (১৫ তলা) ৫৩ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা-১০০০।
🔝