আপলোড তারিখ : 2017-11-27
দুই বছর ধরে বন্ধ কেন্দুয়ায় উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র,সেবা থেকে বঞ্চিত এলাকাবাসী
দুই বছর ধরে বন্ধ কেন্দুয়ায় উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র,সেবা থেকে বঞ্চিত এলাকাবাসীরাখাল বিশ্বাস,তাজাখবর২৪.কম,কেন্দুয়া: টানা দুই বছর ধরে বন্ধ রয়েছে নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলার দলপা ইউনিয়নের উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটি। ফলে অত্র অঞ্চলের রোগীরা স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এলাকার লোকেরা জানান, কেন্দুয়া সদর হতে ২২ কিলোমিটার দুরের এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি দুই বছর ধরে পুরাপুরি বন্ধ। এর আগেও অনিয়মিত ছিল চিকিৎসা সেবা। এখানের মানুষ সামান্য অসুখ-বিষুখে কেন্দুয়া, নেত্রকোণা সদর, পার্শ্ববর্তী উপজেলা গৌরীপুরসহ অনেক দুরে যেয়ে চিকিৎসা করাতে হয়। ২৬ নভেম্বর রোববার সকাল সাড়ে ১০টা হতে ১টা পর্যন্ত দলপা ইউনিয়নের বেখৈরহাটী বাজারে উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র সরজমিনকালে কথা হয় আশিষ রবিদাস, সবুজ মিয়া, জয়নাল মিয়া, সোবেরাজ, পরিমল, দুঃখু মিয়াসহ অনেকের সাথে। তারা সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, ২/৩ বছর ধরে এই হাসপাতালটি বন্ধ রয়েছে। চালু ছিল সময়ও আমরা সঠিক স্বাস্থ্য সেবা পাইনি। বর্তমানে হাসপাতালটি ময়লা, আবর্জনা, মানুষের প্রশ্রাব, পায়খানার দুর্গন্ধে হাসপাতালের আঙ্গিনায় যাওয়া সম্ভব নয়। এটি যে একটি সরকারি হাসপাতাল এমনটি ভাবার কোন অবস্থা বর্তমানে নেই। সন্ধ্যার পর ভূতুরে অবস্থায় নেশাখোরদের স্বর্গরাজ্যে পরিণিত হয়। চলে অসামাজিক কার্যকলাপ। দরজায় ছোট একটি তালা ঝুলে রয়েছে। এটি যেকেউ ইচ্ছে করলে ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে পড়তে পারে। ওই এলাকার রামনগর গ্রামের উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নূরুল ইসলাম এ প্রতিবেদককে অসন্তুষ প্রকাশ করে বলেন, আমাদের এই এলাকাটি উত্তর কেন্দুয়া নামে পরিচিত। এখানের একমাত্র উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটির এই বেহাল দশা দুর করতে অনেক চেষ্টা করে দুই বছরেও উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটি চালু করাতে পারিনি। হাসপাতালটির গেইট থেকে শুরু করে সামনে-ভেতরে চতুরপাশে মানুষের মলমূত্রে সয়লাপ। তাছাড়া বাউন্ডারী না থাকায় পাশের গরুর হাটের গরুর বিষ্ঠা-প্রশ্রাব এবং পাশের কসাইখানার গরুর রক্ত, বর্জ্য, উৎকৃষ্ট ইত্যাদি হাসপাতালের আঙ্গিনায় ড্রেনে ফেলার কারণে দুর্গন্ধে পরিবেশ মারাত্মক দূষিত হয়ে পড়েছে। তিনি অনতিবিলম্বে হাসপাতালটি চালু করে এলাকাবাসীকে স্বাস্থ্য সেবা দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানান। দলপা ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম খান পাঠান ওলি’র মোবাইলে যোগাযোগ করে মোবাইল বন্ধ থাকায় তাহার কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি। কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ জিনাত সাবাহ্ (ইউএইচএন্ডএফপিও) ঢাকায় ট্রেনিং এ থাকায় বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রোর আরএমও ডাঃ দেবপ্রান রায় জানান, গত ফেব্র“য়ারী থেকে এ উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটি বন্ধ রয়েছে। কারণ হিসেবে জানান, উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটিতে নিয়োগকৃত কোন ডাক্তার বা এমসিএমও, ফার্মাসিস্ট নেই। এমএলএসএস রতন মিয়া নামে একজন ছিলেন। তিনিও ডেপুটিশনে উপজেলা হাসপাতালে রয়েছেন। ফলে দীর্ঘদিন ধরে উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রটি বন্ধ রয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুকতাদিরুল আহমেদ জানান, তিনি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তাকে বিষয়টির ব্যবস্থা নেয়ার জন্যে বলবেন।


তাজাখবর২৪.কম: ঢাকা সোমবার ২৭ নভেম্বর ২০১৭, ১৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪


এই বিভাগের আরো সংবাদ

advertisement

 




                                     সম্পাদক: কায়সার হাসান
                    নির্বাহী সম্পাদক: মো: সাইফুল ইসলাম চৌধূরী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: আর কে ফারুকী নজরুল,সহকারি ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: জাহানারা বেগম,
সহকারি সম্পাদক: জহির হাসান,নগর সম্পাদক: তাজুল ইসলাম।
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: মডার্ণ ম্যানশন (১৫ তলা) ৫৩ মতিঝিল বা/এ, ঢাকা-১০০০।
এই ঠিকানা থেকে সম্পাদক কায়সার হাসান কর্তৃক প্রকাশিত।
কপিরাইটর্ ২০১৩: taazakhobor24.com এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
ফোন: ০৮৮-০২-৫৭১৬০৭২০, মোবাইল: ০১৮১৮১২০৯০৮, ০১৯১২৪৬৩৪৭০, ০১৬৭২৩৭৭৬৬৬
ই-মেইল: taazakhobor24@gmail.com, facebook: taaza khobor

সোমবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৭